নারী পাচার : এবার মুখ খুললেন নায়িকা অপু বিশ্বাস

5

বিনোদন ডেস্ক: দুবাইয়ে নারী পাচারে জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেফতারের পর কারাগারে পাঠানো হয়েছে দেশের জনপ্রিয় কোরিওগ্রাফার ও নৃত্যশিল্পী ইভান শাহরিয়ার সোহাগকে। রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের পর অনেকের নাম প্রকাশ করছেন তিনি। সেখানে উঠে এসেছে অন্য এক কোরিওগ্রাফার গৌতম সাহার নাম।

এরপর বেশকিছু গণমাধ্যম গৌতমকে চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাসের ম্যানেজার দাবি করে সংবাদ প্রকাশ করেছে। বিষয়টি নিয়ে বেশ বিব্রত অপু বিশ্বাস। এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অভিনেত্রী। তিনি গৌতম সাহা তার ম্যানেজার নন বলে দাবি করেছেন।

অপরদিকে, গৌতম সাহাও এনিয়ে নিজের অবস্থান পরিস্কার করেছেন। তিনিও বলেন, তিনি কারও ম্যানেজার নন।

রোববার দুপুরে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এ নিয়ে একটি স্ট্যাটাস দেন অপু বিশ্বাস।

দীর্ঘ স্ট্যাটাসে তিনি লিখেছেন, [আমি একজন অভিনেত্রী হিসেবে মিডিয়াতে কমবেশি সবার সঙ্গে কাজের জন্য যোগাযোগ করতে হয়।

আরেকটা কথা ক্লিয়ার ভাবে বলতে চাই আমার কোন ব্যক্তিগত মিডিয়া ম্যানেজার নেই, পরিচিতজনের মাধ্যমে বিভিন্ন কাজের মিটিং বা কাজের প্রপোজাল পাই।

আজকে কিছু নিউজে দেখছি যে ‘অপু বিশ্বাসের ম্যানেজার’ এভাবে কিছু নিউজ এর শিরোনাম দেয়া হচ্ছে। আপনাদের কাছে অনুরোধ এইসব নিউজে আমার নাম জড়িয়ে আমাকে বিব্রত করবেন না।

আমি আবারও ক্লিয়ার করে বলতে চাই- আমার ব্যক্তিগত কোনো মিডিয়া ম্যানেজার নেই।

যে নিউজটি আপনারা অলরেডি করেছেন আমার নাম জড়িয়ে, তারা দয়া করে কারেকশন করুন নতুবা আমি সাইবার ক্রাইম ডিভিশনে লিখিত অভিযোগ দিব। ধন্যবাদ।
– অপু বিশ্বাস]

অপরদিকে, গৌতম সাহা লেখেন- [সকালে একটা খবর দেখে অবাক হয়েছি। আমি বাংলাদেশের সব আর্টিস্টদের সাথে কাজ করছি।কাজের ক্ষেত্রে ইভান শাহরিয়ার সোহাগকে চিনি। কাজের সূত্র ধরে কয়েকবার দেখাও হয়েছে। কাজের বাইরে কখনো দেখা বা কথা হয়নি। আর একটি গণমাধ্যমে যে সংবাদ এসেছে সেটি একেবারে ভিত্তিহীন। আমি দুবাইয়ে কোনো নৃত্যশিল্পীকে পাঠায়নি। আমি কোনো নৃত্য কোরিওগ্রাফারও নই। আমি যতবার বিদেশ গেছি, তা রেকর্ড রয়েছে। দুবাইয়ে আমি কোনো শো করিও নাই কখনও। আরেকটি কথা, আমি কারো ম্যানেজার নই। সবার কাছে অনুরোধ থাকবে আমার নাম জড়িয়ে আমাকে বিব্রত করবেন না।
– গৌতম সাহা]

উল্লেখ্য, বিদেশে অনুষ্ঠানের নামে নারী পাচার চক্রের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে নৃত্যশিল্পী, কোরিওগ্রাফার ও নৃত্য শিক্ষক ইভান শাহরিয়ার সোহাগকে গ্রেফতার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। রাজধানীর নিকেতনের একটি বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

সিআইডির এক কর্মকর্তা জানান, দুবাই পুলিশের তথ্যের ভিত্তিতে গত মাসে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) আজম খানসহ তার নারী পাচারকারী চক্রের পাঁচ সদস্যকে গ্রেফতার করে। তাদের মধ্যে তিনজন স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে সোহাগের তথ্য বেরিয়ে আসে।

কয়েকজন নৃত্য সংগঠক ও শিল্পী এই সিন্ডিকেটে জড়িত উল্লেখ করে ঐ পুলিশ কর্মকর্তা জানান, এই চক্র মূলত নৃত্য শিল্পীদের টার্গেট করতো। পাড়া-মহল্লার বিভিন্ন ক্লাব ও ডান্সগ্রুপের লোকজনও এই চক্রের সঙ্গে জড়িত।

এখানে আরও উল্লেখ্য যে, সোহাগ ও গৌতমের সঙ্গে অপু বিশ্বাসের একটি গভীর সম্পর্ক রয়েছে। যেটি অনেকটা বন্ধুত্বের। বিভিন্ন সময় তাদের এক সঙ্গে দেখা গেছে। বিশেষ করে জন্মদিন, বিভিন্ন অনুষ্ঠান, পারিবারিক আয়োজন এবং আড্ডাসহ প্রায় সময়ই তারা এক সঙ্গে মিলিত হতেন।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.


Notice: Undefined index: name in /var/www/wp-content/plugins/propellerads-official/includes/class-propeller-ads-anti-adblock.php on line 169