ঋতুস্রাব প্রসঙ্গে নিজের সমস্যার কথা জানিয়ে প্রশংসিত টালিউড নায়িকা

সম্প্রতি ইনস্টাগ্রামে একটি বইয়ের পাতার ছবি পোস্ট করেছেন মিমি। বইয়ের সেই পাতায় ঋতুচক্রের সমস্যার কথা লেখা রয়েছে

0 48

প্রকৃতির নিয়মে প্রতিটি মেয়ের জীবনে আসে ঋতুস্রাবের ব্যাপারটি। সন্তান জন্ম দেওয়ার জন্য এই প্রক্রিয়ার মধ্যে প্রতিটি মেয়ের যেতে হয় এবং সহ্য করতে হয় অসহনীয় যন্ত্রণা। সবাই ব্যাপারটি নিয়ে কমবেশি জানলেও এই প্রসঙ্গে কথা বলা সমাজে এখনো ট্যাবু। তবে ঋতুস্রাব নিয়ে এবার সরাসরি কথা বললেন টালিউড নায়িকা মিমি চক্রবর্তী।

সম্প্রতি ইনস্টাগ্রামে একটি বইয়ের পাতার ছবি পোস্ট করেছেন মিমি। বইয়ের সেই পাতায় ঋতুচক্রের সমস্যার কথা লেখা রয়েছে। মিমির পোস্ট করা সেই লেখায় ঋতুস্রাব সমস্যার পরই ঋতুচক্রের সমস্যার সমাধানের কথা লেখা ছিল। সেই সমাধানের লেখাটা তিনি বাদ দিয়ে সমস্যার লেখাটির ছবি তুলে পোস্ট করে তিনি নিজের সমস্যার কথা ভক্তদের সঙ্গে শেয়ার করেছেন।

ছবিটি পোস্ট করে মিমি ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘মেয়ে হিসেবে আমার মনে হয়, দশজনের মধ্যে আটজনই ঋতুস্রাবের সমস্যার মধ্য দিয়ে যায়। আমিও এই প্রতিটি সমস্যার মধ্য দিয়ে যাই। এই বইটা পড়ে মনে হচ্ছে বইয়ের লেখাগুলোর ওপর ভরসা করতে পারি। দেখা যাক, বইটা আমাকে সাহায্য করতে পারে কি না।’

মিমির ইনস্টাগ্রাম পোস্টে দেখা যায়, সেখানে লেখা, ‘ঋতুস্রাব চলাকালীন সময়ে এগিয়ে পিছিয়ে যাওয়াটা স্বাভাবিক। তবে এর আগে কিংবা পরে অস্বস্তি হওয়া, মেজাজ খারাপ থাকা, তলপেটে ব্যথা একেবারেই স্বাভাবিক নয়। এ ধরনের সমস্যা মানে আপনার শরীর সুস্থ নেই। প্রতিমাসে মেয়েদের এরকম অসুবিধার পর শরীরকে সুস্থ রাখা অসম্ভব হয়ে ওঠে।’

মিমির এই পোস্টের পর তার প্রায় প্রত্যেক অনুসারীই তাকে এর সমাধানের কথা জিজ্ঞেস করেছেন। বইয়ের নাম কী তাও জিজ্ঞাসা করেছেন। ঋতুজা দিবাকরের লেখা বইটির কিছু অংশ পোস্ট করে এই অভিনেত্রী লেখিকার নাম ট্যাগ করে পোস্ট করেন ইনস্টাগ্রামে। আর এই পোস্ট পড়ার পর মিমির প্রশংসা করছেন ভক্তরা। তিনি যে মেয়েদের এই সমস্যাকে সামনে এনে নিজের সমস্যার কথা জানাবার মতো সাহস করেছেন, তাও মন্তব্য করেছেন অনেকে।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.