হলিউডের সর্বকালের সেরা ৫ আবেদনময়ী তারকা

0 23

চলচ্চিত্রপ্রেমীদের কাছে ‘হলিউড’এক অন্তহীন আগ্রহের নাম। এই ইন্ডাস্ট্রির মেগাস্টারদের নিয়ে মানুষের রয়েছে বিস্তর কৌতুহল। যৌন আবেদন বা শরীর কেন্দ্রীক বিষয় হলে তো কথাই নেই। আজ অবধি অনেক আবেদনময়ী অভিনেত্রী এসেছেন হলিউডে। তাদের মাঝে সেরা পাঁচজনকে বাছাই করা অত্যন্ত কঠিন।

কারণ, প্রচুর পর্যালোচনা ও বিশ্লেষণ হয়েছে হলিউড অভিনেত্রীদের সৌন্দর্য ও আবেদন নিয়ে। তবে অধিকাংশ ম্যাগাজিন ও ওয়েবসাইট যে মতামত দিয়েছে তা প্রাধান্য দিয়ে আমরা বিডি২৪লাইভের পাঠকদের জন্য তুলে ধরছি হলিউডের সর্বকালের সেরা পাঁচ আবেদনময়ীর কথা।

১. স্কারলেট জোহানসন: এফএইচএম ওয়েবসাইটের ভোটে ২০০৬ সালে, পৃথিবীর জীবন্ত নারীদের মাঝে শীর্ষ যৌনাবেদনময়ী হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন। আর ২০০৯ সালে নির্বাচিত হয়েছিলেন সেক্সিয়েস্ট সেলিব্রিটি হিসেবে। বিশেষজ্ঞদের মতে ওয়ার্ল্ডের সবচেয়ে পারফেক্ট ফিগার এই নারীর দখলে। প্রাচীন গ্রীসের সোনালী সময়ের কিংবদন্তী নারী চরিত্রদের সাথেই তার তুলনা করেছেন বিশ্লেষকরা। সুতরাং, হলিউডের সর্বকালের সেরা আবেদনময়ী অভিনেত্রী অবশ্যই স্কারলেট জোহানসন। আন্ডার দি স্কিন, লস্ট ইন ট্রান্সস্লেশন, ক্যাপ্টেইন অ্যামেরিকা-উইন্টার সোলজার প্রভৃতি তার অভিনীত সেরা মুভি।

২. মেগান ফক্স: দুর্দান্ত অভিনয়, সংযত আবেগ এবং একাধিক ভূমিকায় পারফেক্ট অ্যাক্টিং এর জন্য হলিউডে পরিচালকদের কাছে ‘মেগান ফক্স’ এক নির্ভরতার নাম। এফএইচএম তাকে ২০০৮ সালে পৃথিবীর জীবন্ত নারীদের মাঝে শীর্ষ যৌনাবেদনময়ী হিসেবে নির্বাচিত করে। ম্যাক্সিম ম্যাগাজিনের হট হান্ড্রেড তালিকায় চলে আসেন ২০০৯ সালে। মুভিফোনস এর জরিপে তাকে অনূর্ধ্ব ২৫ বছরের সেরা যৌনাবেদনময়ীর তালিকায় শীর্ষস্থানীয় হিসেবে দেখানো হয়। আধুনিক বিশ্বে তাকে নারী সৌন্দর্যের অন্যতম সেরা মডেল হিসেবে গন্য করা হয়। বহু ম্যাগাজিনের কাভার স্টোরি হয়েছেন আকর্ষণীয় শরীরের জন্য। তবে অভিনয়ে দক্ষদের মাঝে মেগান ফক্সকেই অনেকে সবচেয়ে বেশি আবেদনময়ী বলে মনে করেন।

৩. জেসিকা আলবা: এই তালিকার তৃতীয় নারী জেসিকা আলবা; যিনি একইসাথে অভিনেত্রী, মডেল ও বিজনেস ম্যাগনেট। সিন সিটি, ফ্যান্টাস্টিক ফোর, স্পাই কিডের মত বিশ্বখ্যাত মুভিতে দেখিয়েছেন নিজের অভিনয়শৈলী। ম্যাক্সিম ম্যাগাজিনের হট হান্ড্রেড লিস্টে নাম্বার ওয়ান নির্বাচিত হন, ২০০১ সালে। প্লেবয় ম্যাগাজিনের কাভার স্টোরিতে জায়গা করে নেন সেরা ২৫ যৌনাবেদনময়ীর তালিকায়। পৃথিবীতে সুইম স্যুটে তিনিই সবচেয়ে আকর্ষণীয় নারী বলে উল্লেখ করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

৪. মেরিলিন মনরো: পঞ্চাশের দশকে, সারা পৃথিবীতেই সবচেয়ে সৌন্দর্যময়ী হিসেবে দেখা হত মেরিলিন মনরোকে। আওয়ার গ্লাস স্ট্রাকচার ও পারফেক্ট বডি শেপিং এর জন্য আজো তার জনপ্রিয়তা অবিসংবাদিত। অভিনয় দক্ষতার জন্য পেয়েছিলেন গোর্ডেন গ্লোব অ্যাওয়ার্ড। আজো হলিউডের সেরা অভিনেত্রীরা বিভিন্ন ক্ষেত্রে অনুসরন করেন মেরিলিন মনরোকে। স্বল্পায়ু জীবন নিয়েও হলিউডে আজো কিংবদন্তী হয়ে রয়েছে তার সৌন্দর্য, আবেদন ও স্টাইল।

৫. গ্রেস কেলি: প্রিন্স তৃতীয় রেইনারকে বিয়ে করে মোনাকোর রাজকুমারী হয়েছিলেন এই হলিউড সুন্দরী। পঞ্চাশের দশকে তাকে পৃথিবীর অন্যতম সেরা সুন্দরী বলে বিবেচনা করা হত। আর হলিউডের সংক্ষিপ্ততম যৌনাবেদনময়ীর তালিকাতেও বরাবর শুরুর দিকেই থাকেন গ্রেস কেলি। সবচেয়ে আকর্ষণীয় ছিল তার অপরূপ মুখশ্রী। সবচেয়ে ওয়েল ড্রেসড সুন্দরী হিসেবে আজো তাকে শীর্ষস্থানে বিবেচনা করা হয়। ফ্যাশন ট্রেন্ডের কারণে সেকালে তো বটেই এখনও তাকে আইকনিক হিসেবে দেখে বিশ্বের ট্রেডমার্ক ফ্যাশন হাউসগুলো। অভিনয়ের জন্য অর্জন করেছিলেন গোল্ডেন গ্লোব অ্যাওয়ার্ড। ১৯৫৫ সালের অস্কারে তিনি যে গাউন পরেছিলেন, তা পরিচ্ছন্ন সৌন্দর্যের কারণে আজো বিখ্যাত হয়ে আছে।

সূত্র: লিস্টঅ্যামেইজ ডটকম

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.