ক্ষমা চেয়েছেন শহিদুল আলম

0 13

দেশের বিরুদ্ধে মিথ্যা তথ্য ছড়িয়েছেন স্বীকার করে ক্ষমা চেয়েছেন আলোকচিত্রী শহিদুল আলম। রিমান্ডে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে এসব তথ্য স্বীকার করেছেন বলে জানিয়েছে পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)।

বৃহস্পতিবার (৯ আগস্ট) ডিবি কর্মকর্তা মশিউর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, ‘ফেসবুক লাইভে দেশের বিরুদ্ধে মিথ্যা তথ্য দিয়ে ছাত্র আন্দোলনকে ভিন্ন খাতে প্রবাহের চেষ্টা করেছিলেন আলোকচিত্রী শহিদুল আলম। রিমান্ডে বিষয়টি স্বীকার করে নিজের কৃতকর্মের জন্য ক্ষমাও চেয়েছেন তিনি। ’

এর আগে, বুধবার আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী শহিদুল আলমকে চিকিৎসার জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে বিভিন্ন ধরনের পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে ফের তাকে ডিবি কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়।

গত রোববার রাতে শহিদুল আলমকে নিজ বাসা থেকে তুলে নিয়ে যাওয়ার পরদিন সোমবার তার বিরুদ্ধে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) আইনের ৫৭ ধারায় মামলা দায়ের করে পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) উত্তরের পুলিশ পরিদর্শক মেহেদী হাসান।

পরে তাকে আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করলে আদালত সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এই রিমান্ড আদেশ চ্যালেঞ্জ করে মঙ্গলবার হাইকোর্টে রিট করেন শহিদুলের পার্টনার অধ্যাপক রেহনুমা আহমেদ। রিট শুনানি নিয়ে হাইকোর্ট শহিদুলকে দ্রুত বিএসএমএমইউয়ে ভর্তি করে চিকিৎসা দিতে নির্দেশ দেন হাইকোর্ট এবং বৃহস্পতিবারের মধ্যে তার স্বাস্থ্য পরীক্ষার প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দেন।

 

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.