মুক্তিযোদ্ধা-লেখক ড. নূরন্নবীকে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসীদের সংবর্ধনা

0 35

নিউইয়ক: মুক্তিযোদ্ধা-বিজ্ঞানী-লেখক এবং যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি ড.. নূরন্নবীকে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানিয়েছে নিউ জার্সি অঙ্গরাজ্যের পেশাজীবী প্রবাসীরা।

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক সাহিত্যে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ বাংলা একাডেমির অনরারি ফেলোশিপ পাওয়ায় প্রবাসীরা ‘বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব নিউ জার্সি’র ব্যানারে ড. নূরন্নবীকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানায়। গতকাল রবিবার বিকেলে নিউ জার্সির প্লেইন্সবরো রিক্রিয়েশন সেন্টারের এ অনুষ্ঠানে নিউইয়র্ক, ম্যাসেচুসেটস, পেনসিলভেনিয়াসহ আশপাশের বিশিষ্টজনেরাও ছিলেন। প্রধান অতিথি ছিলেন ড. জসীমউদ্দিন আহমেদ।

এ সময় নূরন্নবীর লেখা ৫টি গ্রন্থের প্রদর্শনী ও আলোচনার আয়োজন করা হয়। গ্রন্থগুলি ছিল ‘জন্ম ঝড়ের বাংলাদেশ’, ‘হুমায়ূন আহমেদ, কাছের মানুষ’, ‘শামসুর রাহমান, স্বাধীনতার কবি’, ‘অধ্যাপক কবীর চৌধুরী, মৌলবাদের নির্ভীক প্রতিবাদী’ এবং ‘আমেরিকায় জাহানারা ইমামের শেষ দিনগুলি’।

বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব নিউ জার্সির সেক্রেটারি মেহের নিগার অনুষ্ঠানে স্বাগত জানান মড. নূরন্নবীকে। এরপরই বিপুল করতালির মধ্য দিয়ে তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়। কবি ফারুক আজম কর্তৃক অনুষ্ঠানের প্রেক্ষাপট উপস্থাপনের পর স্বাগত বক্তব্য দেন আয়োজক সংগঠনের প্রধান গোলাম ফারুক ভূইয়া।

দ্বিতীয় পর্বে ৫টি গ্রন্থের অংশবিশেষ পাঠ করেন নাজনীন হুসেন (জন্ম ঝড়ের বাংলাদেশ), মেহের নিগার (আমেরিকায় জাহানারা ইমামের শেষ দিনগুলি), শিমুল বানু (হুমায়ূন আহমেদ, কাছের মানুষ), সাবিনা আহমেদ রূপা (শামসুর রাহমান, স্বাধীনতার কবি) এবং শামিম আরা হোসেন লিপি (অধ্যাপক কবীর চৌধুরী, মৌলবাদের নির্ভীক প্রতিবাদী)। এই ৫টি গ্রন্থ থেকে চুম্বক অংশ পাঠ করেন ফোবানার এক্সিকিউটিভ সেক্রেটারি ও নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাকারিয়া চৌধুরী।

এরপর গ্রন্থগুলোর ওপর পর্যবেক্ষণমূলক আলোচনা করেন মেহের নিগার মুনমুন, অজন্তা সিদ্দিকী, ড. মোসলেহ উদ্দিন, ড. ফারুক মহসিন, ড. মনোয়ার হোসেন, সেলিনা আকতার প্রমুখ।

মুক্তিযোদ্ধা-লেখক ও যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি ড. নূরন্নবীর বহুমুখী প্রতিভার প্রশংসা করে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান। সাপ্তাহিক বাঙালি পত্রিকার সম্পাদক কৌশিক আহমেদও নূরন্নবীর সাহিত্য-কর্ম আলোকে বক্তব্য রাখেন।

প্রাণের আমেজ এবং হৃদয়ের উষ্ণতায় প্রদত্ত সংবর্ধনার জবাবে ড. নূরন্নবী বলেন, একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধ ছিল আমার জীবনের শ্রেষ্ঠতম ঘটনা। এরপর জীবিকার জন্যে উচ্চতর শিক্ষা শেষে গবেষণায় লিপ্ত ছিলাম। এরপর লিখেছি। বাংলার পাশাপাশি ইংরেজি অনুবাদও রয়েছে মুৃক্তিযুদ্ধের ঘটনাবলির আলোকে লেখা গ্রন্থের। এভাবেই প্রবাসে বেড়ে উঠা বাঙালি প্রজন্মকে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি শেখ মুজিবের অবিস্মরণীয় নেতৃত্ব গুণের কথা জানানোর প্রয়াস পেয়েছি।

উল্লেখ্য, টানা ১২ বছর যাবত নিউ জার্সি অঙ্গরাজ্যের প্লেইন্সবরো সিটির নির্বাচিত কাউন্সিলম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন ড. নূরন্নবী।

অনুষ্ঠানে স্বরচিত কবিতা পাঠ করেন ড. দলিলুর রহমান।

অনুষ্ঠানে সুধীজনের মধ্যে আরো ছিলেন ফেডারেশন অব বাংলাদেশি অগ্যানাইজেশন্স ইন নর্থ আমেরিকার (ফোবানা) এক্সকিউটিভ চেয়ারম্যান মীর চৌধুরী, একক্সিকিউটিভ সেক্রেটারি জাকারিয়া চৌধুরী, সাবেক চেয়ারম্যান নাহিদ চৌধুরী মামুন, চারণ কবি বেলাল বেগ, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নির্বাহী সদস্য শাহানারা রহমান, যুক্তরাষ্ট্র সেক্টর কমান্ডার্স ফোরামের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা রাশেদ আহমেদ, মুক্তিযোদ্ধা-বিজ্ঞানী ড. জিনাত নবী প্রমুখ।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.