জাতীয় শোক দিবসে যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের আলোচনা সভা

0 13

নিউইয়র্ক: নিউইয়র্কে জাতীয় শোক দিবসে আলোচনা সভা করেছে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের যুক্তরাষ্ট্র শাখা। নিউইয়র্ক সিটির জ্যাকসন হাইটসে পালকি পার্টি সেন্টারে মঙ্গলবার রাতে আয়োজিত সভায় সভাপতিত্ব করেন কম্যুনিটি লিডার রানা ফেরদৌস চৌধুরী এবং সার্বিক পরিচালনায় ছিলেন ফাউন্ডেশনের সেক্রেটারি হাজী আব্দুল কাদের মিয়া। পঁচাত্তরের ১৫ আগস্ট রাতে নৃশংসতার শিকার বঙ্গবন্ধু এবং তার পরিবারের সদস্যসহ ২২ জনের আত্মার মাগফেরাত কামনায় এক মিনিট দাঁড়িয়ে নিরবতা পালনের আগে মাওলানা সুলতান মাহমুদের নেতৃত্বে বিশেষ মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।

জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন বলেন, বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনন একটি প্ল্যাটফর্ম যেখানে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা তথা বঙ্গবন্ধুর আদর্শের অনুসারিরা একত্রিত হতে পারবেন অনায়াসে। যারা দলগত কোন অবস্থানে যেতে আগ্রহী নন, তাদের জন্যে এটি বড় একটি অবলম্বন হতে পারবে।

বিশেষ অতিথি নিউইয়র্কে বাংলাদেশের কন্সাল জেনারেল সাদিয়া ফয়জুননেসা বলেন, বঙ্গবন্ধুর দেখিয়ে দেয়া পথেই হাঁটছে আজকের বাংলাদেশ এবং তার নেতৃত্ব দিচ্ছেন জাতিরজনকের কন্যা শেখ হাসিনা।

অনুষ্ঠানের একমাত্র আলোচক ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা এবং পচাত্তরের ১৫ আগস্টে নৃশংসতার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ কর্মসূচিতে অংশ নেয়া গোলাম মোস্তফা খান মিরাজ। তিনি বলেন, ১৫ আগস্টের নৃশংসতার পর একজনকেও দেখিনি বর্বতার নিন্দা আর প্রতিবাদ জানাতে। তেমন একটি বাস্তবতার মধ্যেই আমরা রুখে দাঁড়িয়েছিলাম।

অনুষ্ঠানে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যকালে নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাকারিয়া চৌধুরী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর আত্মজীবনী’ গ্রন্থ পড়া উচিত সকলেরই। তাহলে বাঙালির জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সম্পর্কে অনেক অজানা তথ্য সকলেই জানতে সক্ষম হবেন।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের অন্যতম সহ-সভাপতি লুৎফুল কবীর, হোস্ট সংগঠনের সেক্রেটারি হাজী আব্দুল কাদের মিয়া, যুক্তরাষ্ট্র সেক্টর কমান্ডার্স ফোরামের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা রাশেদ আহমেদ, চট্টগ্রাম সমিতির সভাপতি আব্দুল হাই জিয়া, সেক্টর কমান্ডার্স ফোরামের প্রবাসী কল্যাণ সম্পাদক হাজী জাফরউল্লাহ, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক হাজী এনাম দুলাল।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.