পৌনে পাঁচ ঘণ্টার ‘যুদ্ধ’ জিতলেন নাদাল!

0 18

শেষ পর্যন্ত রাফায়েল নাদালের মুখেই হাসির ঝিলিক! প্রায় পৌনে পাঁচ ঘণ্টা লড়াই করে ডোমিনিক থিয়েমকে হারিয়ে ইউএস ওপেনের সেমিফাইনালে জায়গা করে নিলেন এই স্প্যানিশ কিংবদন্তি।

বুধবার পাঁচ সেটের মহাকাব্যিক এক ম্যাচে রাফায়েল নাদাল ০-৬, ৬-৪, ৭-৫, ৬-৭ (৪/৭) এবং ৭-৬ (৭/৫) গেমে পরাজিত করেন ডোমিনিক থিয়েমকে। প্রতিপক্ষকে হারাতে এদিন রাফার সময় লাগে চার ঘণ্টা ৪৯ মিনিট। মৌসুমের শেষ গ্র্যান্ডস্লাম টুর্নামেন্ট ইউএস ওপেনের কোয়ার্টার ফাইনালের ম্যাচটা শেষ হয়েছে স্থানীয় সময় রাত দুইটা তিন মিনিটে!

এমন ম্যাচ জয়ের অনুভূতিটা কেমন? রাফায়েল বললেন ঠিক যুদ্ধ জয়ের মতোই। ম্যাচের শেষে তার সহজ উত্তর, ‘ডোমিনিককে ম্যাচ চলার সময়ই সরি বলেছি, আমি লড়াইটা চালিয়ে যেতে চাই। সেও অসংখ্যবার জয়ের সম্ভাবনা তৈরি করেছিল, কিন্তু পারেনি। তবে ভবিষ্যতে তার জয়ের সম্ভাবনা আছে, সে বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই। এই ম্যাচে সে বেশ ভুগিয়েছে। আমি এটাকে অসাধারণ এক যুদ্ধ বলব।’

টেনিস কোর্টে সাম্প্রতিক সময়ে দুর্দান্ত খেলছেন ডোমিনিক থিয়েম। সেই ধারাবাহিকতা ধরে রেখে ইউএস ওপেনের কোয়ার্টার ফাইনালেও চমকপ্রদ পারফর্ম করেছেন তিনি। প্রায় পাঁচ ঘণ্টা লড়াই করেও ম্যাচটা শেষ পর্যন্ত হাতছাড়া হয়ে যাওয়ায় চরম হতাশ অস্ট্রেলিয়ার এই টেনিস তারকা। থিয়েম এতটাই ব্যথিত যে, ম্যাচের শেষে টেনিসকে ‘নিষ্ঠুর’ বলে মন্তব্য করেছেন।

এ প্রসঙ্গে টুর্নামেন্টের নবম বাছাই বলেন, ‘কখনো কখনো টেনিস খুব নিষ্ঠুর। তবে এই ম্যাচটা আমার মাথার মধ্যে সারা জীবন গেঁথে থাকবে। এমন ম্যাচ খেলেও হার তো কখনোই মানায় না কিন্তু এখানে একজন তো হারতেই হবে!’

এ বছরের সবচেয়ে দীর্ঘতম সময়ের ম্যাচ জেতা রাফায়েল নাদাল ইউএস ওপেনের সেমিফাইনালে মুখোমুখি হবেন জুয়ান মার্টিন দেল পোত্রোর। শুক্রবার শেষ চারের সেই লড়াইটাও বেশ জমজমাট হবে বলে টেনিসবোদ্ধাদের ধারণা। কেননা, দেল পোত্রোও যে ২০০৯ সালে এই টুর্নামেন্টের চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলেন। তবে সেই ম্যাচে আর্জেন্টাইন তারকাকে হারাতে পারলে ক্যারিয়ারের ১৮তম গ্র্যান্ডস্লাম জয়ের আরও দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে যাবেন বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর খেলোয়াড় রাফায়েল নাদাল।

সূত্র: বিবিসি

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.