বিভিন্ন দাবিতে যুক্তরাষ্ট্রে আওয়ামী লীগের মানবন্ধন

0 15

মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং নিউইয়র্কে ডাইভার্সিটি প্লাজায় সোমবার যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ব্যানারে দুটি মানবন্ধন করা হয়েছে। এতে বঙ্গবন্ধুর ঘাতক রাশেদ চৌধুরী এবং একাত্তরের ঘাতক আশরাফুজ্জামান খানকে অবিলম্বে যুক্তরাষ্ট্র থেকে বাংলাদেশে ফেরত পাঠানোর দাবি জানানো হয়। পাশাপাশি দেশত্যাগী রোহিঙ্গাদের সসম্মানে নিজ বসতভিটায় ফিরে যাবার পরিবেশ তৈরির জন্যে যুক্তরাষ্ট্রকে সোচ্চার হবারও আহবান জানানো হয়।

ওয়াশিংটন ডিসিতে ড. সিদ্দিকুর রহমানের নেতৃত্বাধীন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ, মেট্রো ওয়াশিংটন আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতা-কর্মীরা এতে অংশ নেন।

উল্লেখ্য, রোহিঙ্গা শরণার্থীদের পক্ষে রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সামনে এই প্রথম কোন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হল। এতে ছিলেন আব্দুস সামাদ আজাদ, হাজী এনাম দুলাল মিয়া, আবুল হাসিব মামুন, তৈয়বুর রহমান টনি, খোরশেদ খন্দকার, শাহানারা রহমান, নান্টু মিয়া, মোহাম্মদ আলমগীর, শেখ সেলিম, জি আই রাসেল, শিব্বির আহমেদ, জুয়েল বড়ুয়া, মজিবর রহমান খান, আক্তার হোসেন, হারন-অর রশীদ, আবুল হোসেন শিকদার, কামাল হোসেন, দেওয়ান এরশাদ আলী বিজয়, রবিউল ইসলাম রাজু প্রমুখ।

এদিকে, নিউইয়র্ক সিটির জ্যাকসন হাইটসে ডাইভার্সিটি প্লাজায় একই দাবিতে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের অপর অংশের নেতৃবৃন্দের মধ্যে ছিলেন ড. প্রদীপ কর, কাজী কয়েস, মিসবাহ আহমেদ, ফরিদ আলম, কায়কোবাদ খান, মঞ্জুর হোসেন, ডি এম রনেল প্রমুখ।

রোহিঙ্গা নির্যাতনের জন্যে দায়ীদের আন্তর্জাতিক আদালতে বিচার দাবি করা হয় এ কর্মসূচি থেকে। একইসাথে একাত্তরের আলবদর হিসেবে মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত আশরাফুজ্জামান খান এখনও নিউইয়র্কে আত্মগোপনে থেকে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে নানা ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে বলে অভিযোগ করা হয়। বঙ্গবন্ধুর ঘাতক হিসেবে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত রাশেদ চৌধুরী পালিয়ে রয়েছে ক্যালিফোর্নিয়ায়। সেখানে থেকেই মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষ শক্তির সাথে শলাপরামর্শ চালিয়ে বাংলাদেশকে আবারও জঙ্গিরাষ্ট্রের অপবাদ দেয়ার ফন্দি আঁটছে বলে উল্লেখ করা হয়।

এছাড়া, ২৩ সেপ্টেম্বর থেকে ২৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত নিউইয়র্কে অবস্থানকালে শেখ হাসিনার সকল কর্মকাণ্ডে সকলকে সোচ্চার থাকার আহবান জানানো হয়। প্রতিবাদের নামে জামায়াত-শিবিরের যে কোন অপতৎপরতা রুখে দেয়ার সংকল্পও ব্যক্ত করেন নেতৃবৃন্দ।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.