‘অনেকেই স্বার্থোদ্ধারে পুরুষের ঘনিষ্ঠ হয়ে পরে অভিযোগ করে’

0 8

বিশ্বজুড়ে এখন আলোচিত বিষয় ‘হ্যাশট্যাগ মি টু’ আন্দোলন। নিজেদের সঙ্গে ঘটে যাওয়া যৌন হয়রানি নিয়ে মুখ খুলছেন একের পর এক গায়িকা-নায়িকা-মডেল, অভিনেত্রীরা। অভিযোগ উঠেছে, অনেক প্রভাবশালী প্রযোজক, অভিনেতার বিরুদ্ধে।

এবার বিষয়টি নিয়ে মুখ খুললেন অভিনেত্রী পামেলা অ্যান্ডারসন। তিনি মনে করেন, যৌন নিপীড়ন নিয়ে প্রতিবাদ হওয়া উচিত। কিন্তু এখন বিষয়টা নিয়ে কেউ কেউ বাড়াবাড়িই করছেন।

সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়ার একটি টেলিভিশন অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছিলেন পামেলা। সেখানেই এমন মন্তব্য করেন তিনি। পামেলা বলেন, আমি নিজে নারীবাদী। তবে এখন যে নারীবাদী আন্দোলনের জোয়ার এসেছে, তাতে মোটেও সায় নেই আমার। ব্যাপারটা বাড়াবাড়ির পর্যায়ে চলে যাচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, অনেকেই হয়ত আমার সঙ্গে একমত হবেন না। এমন মন্তব্যের জন্য হয়ত মেরেও ফেলা হতে পারে আমাকে। তবে দুঃখিত, এই আন্দোলনকে সমর্থন করতে পারছি না।

হলিউড প্রযোজক হার্ভি উইনস্টিনের বিরুদ্ধে একাধিক অভিনেত্রী যৌন হয়রানির অভিযোগ করার পর সোশ্যাল শুরু হয় ‘হ্যাশট্যাগ মিটু’ আন্দোলন। হলিউড-বলিউডের অনেকেই বিষয়টি নিয়ে মুখ খুলেন।

এবার পামেলা বললেন উল্টো কথা। যারা যৌন হয়রানির শিকার, তাদেরকেও দায়ী করেন এই অভিনেত্রী। পামেলা বলেন, কেউ কেউ নিজের স্বার্থের কারণেই পুরুষ মানুষকে কাছে টানেন। তাহলে এখন প্রতিবাদ কেন?

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.