মুজিব শতবর্ষ উদ্‌যাপনে প্রস্তুতি সভা

0 56

হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে ১৪ জুন নিউইয়র্কের এম্পায়ার এস্টেটে জ্বলে উঠবে লাল সবুজের বাংলাদেশের পতাকা। বাংলাদেশের পতাকা নিয়ে একটি উড়োজাহাজ নিউইয়র্কের স্কাই লাইন প্রদক্ষিণ করবে। বাংলাদেশি অধ্যুষিত জ্যামাইকার সড়ক পথের নামকরণ হবে বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে। কুইন্সের লাইব্রেরি পালন করবে বঙ্গবন্ধু সপ্তাহ। আমেরিকার ডাক বিভাগ ছাপতে পারে বিশ্বনেতা শেখ মুজিবকে নিয়ে স্মারক ডাকটিকিট। উন্মুক্ত মাঠে এক শ ফুট দীর্ঘ কেক কাটবে শত শিশু, শত শিল্পী কণ্ঠে উচ্চারিত হবে বঙ্গবন্ধু স্মরণে গান।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু জন্ম শতবার্ষিকী নিয়ে আয়োজক সংগঠন বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন ইউএসএ ইনক এক সভায় এমন প্রস্তুতির কথা জানিয়েছে। ৪ ফেব্রুয়ারি জ্যামাইকার স্টার কাবাব হলে বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকীর প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়। মোহাম্মদ কবীর কিরণের সঞ্চালনায় সভায় সভাপতিত্ব করেন নাসির আলী খান।
সভার শুরুতে নাসির আলী অনুষ্ঠানে আগত সবাইকে শুভেচ্ছা ও ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু কন্যা বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে বিশ্বজুড়ে বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকী পালিত হবে। আমরা চাই একটু ভিন্ন কিছু করতে। বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন ইউএসএ ইনক জুনের ১৪ তারিখে পুরো নিউইয়র্কে বাঙালিদের সমবেত করে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করতে চায়। অনুষ্ঠানের বিস্তারিত পরিকল্পনা তিনি সভায় তুলে ধরেন।
নাসির আলী বলেন, এসব পরিকল্পনার মধ্যে রয়েছে জ্যামাইকা ১৬৪ স্ট্রিট থেকে ১৭৩ স্ট্রিট পর্যন্ত সড়ককে বঙ্গবন্ধুর নামে নামকরণ করা। এ জন্য ইতিমধ্যেই নিউইয়র্ক সিটির কাছে আবেদন করা হয়েছে। তার জন্য সিটির নিয়ম অনুযায়ী ওই এলাকায় বসবাসকারী বাংলাদেশিদের ঠিকানাসহ স্বাক্ষর করে আবেদন জমা দেওয়া হচ্ছে।
নাসির আলী সভায় জানান, এম্পায়ার স্টেট বিল্ডিংকে লাল সবুজের পতাকার রঙে সাজানোর আবেদন জানানো হয়েছে। নিউইয়র্ক নগরের পোস্টাল ডিপার্টমেন্টে বঙ্গবন্ধুর নামে ডাকটিকিট করার জন্য আবেদন করা হয়েছে। কুইন্স লাইব্রেরিতে এক সপ্তাহের জন্য ‘বঙ্গবন্ধুর সপ্তাহ’ পালনের ঘোষণা দিতে অনুরোধ করা হয়েছে। তিনি আরও জানান, শত বছরের প্রতীক সামনে রেখে ১০০ ফুট কেক তৈরির পরিকল্পনা হাতে নেওয়া হয়েছে, যা কাটা হবে এক শ শিশুদের নিয়ে।


সভায় আরও জানানো হয়, কণ্ঠযোদ্ধা শহীদ হোসেনের নেতৃত্বে ১০০ জন শিল্পীরা গাইবেন ‘শোন একটি মুজিবরের কণ্ঠে লক্ষ মুজিবরের কণ্ঠ স্বরের ধ্বনি প্রতিধ্বনি’। ১০০ শিশুর গান ও নাচের আয়োজনের পরিকল্পনাও করা হচ্ছে। বঙ্গবন্ধুর ছবিসহ শুভেচ্ছা বার্তা নিয়ে নিউইয়র্কের আকাশে উড়োজাহাজ প্রদক্ষিণ করবে। নাসির আলী জানান, ‘এর মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুকে আমরা সারা পৃথিবীতে ছড়িয়ে দিতে চাই। আগামী প্রজন্মের কাছে পৌঁছে দিতে হলে আমাদের এসব পদক্ষেপ নিতে হবে। বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন ইউএসএ ইনক মনে করে, বঙ্গবন্ধু কারও একার বা কোনো গোষ্ঠীর জনক নয়, তিনি ১৭ কোটি বাঙালির জাতির জনক।
সভায় জানানো হয়, অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি থাকবেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ। কি–নোট স্পিকার থাকছেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। জননেতা তোফায়েল আহমেদসহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন। শিল্পী সাবিনা ইয়াসমিন থাকছেন, শিল্পী মমতাজ বেগমও থাকবার কথা রয়েছে।
নাসির আলী বলেন, সব শ্রেণিপেশার প্রবাসীর অংশগ্রহণে সর্বজনীন এ অনুষ্ঠান পালিত হচ্ছে। প্রবাসীদের আর্থিক সমর্থনে এই অনুষ্ঠান সফল করতে কোনো অসুবিধা হবে না। স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম পেশাজীবীরা ছাড়াও আজ নিউইয়র্কে অনেকই প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী। মুক্তিযুদ্ধের পর পরই আমেরিকায় আসা বহু পেশাজীবীর ব্যক্তিগত ঋণ আছে বঙ্গবন্ধুর প্রতি। তিনি সবাইকে বঙ্গবন্ধু জন্ম শতবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে আর্থিক সহযোগিতায় এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন।


অনুষ্ঠানে আরও বক্তৃতা করেন নিউইয়র্ক উত্তর আমেরিকা প্রথম আলোর আবাসিক সম্পাদক ইব্রাহীম চৌধুরী। তিনি ও তার টিম মুজিব বর্ষ পালনে প্রথম আলোর পক্ষ থেকে সব ধরনের সাহায্য করে যাবেন বলেন উল্লেখ করেন।
অনুষ্ঠানে অভিনেত্রী লুৎফুন্নাহার লতা তাঁর অনেক দিনের স্বপ্ন পূরণের আশা ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন, এক সময় ‘জয় বাংলা’ বলার কারণে মঞ্চ থেকে অপমান করে যারা নামিয়ে দিয়েছিলেন, তারাও আজ আমাদের কাতারে দাঁড়িয়ে জয় বাংলা স্লোগান দেয়। ভাবতে খুশি লাগে। সর্বজনীন বঙ্গবন্ধু স্লোগানের জন্য তিনি শেখের বেটিকে ধন্যবাদ দেন।
অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন আমেরিকায় মূলধারার রাজনীতিতে দীর্ঘদিন থেকে সক্রিয় মোর্শেদ আলম। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের জন্ম শতবার্ষিকী পালনে প্রবাসীদের পক্ষ থেকে ঐক্যবদ্ধভাবে সর্বোচ্চ প্রয়াস নেওয়া হবে।
আলোচনায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন শাহাদত হাসান, মনির আহমেদ, সদরুন নুর শ্যামলিপি সায়মা, শিরিন কামাল, মনিকা রায় চৌধুরী, রহমান মাহবুব, সালেহা আলম, রাজীয়া ইসলাম, বাবলি হক, শাহানা বেগম, শারমিন রেজা, রওশন হক, রুপা হক, আইরিন রহমান, মইর শিবলী, রাবি সৈয়দ, লিটু আনাম, এমাদ চৌধুরী, মনিরুল ইসলাম, ডা. নার্গিস রহমান প্রমুখ।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.